প্রচ্ছদ জাতীয়, রাজনীতি, শিরোনাম, স্লাইডার

মেধাবী ছাত্র ছাত্রলীগে গেলে খুনি হয়ে বের হয়: মান্না

নিজস্ব প্রতিবেদক | বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯ | পড়া হয়েছে 122 বার

মেধাবী ছাত্র ছাত্রলীগে গেলে খুনি হয়ে বের হয়: মান্না

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হথ্যার ঘটনায় ভিসি অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম জড়িত রয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন ডাকসুর সাবেক ভিপি ও নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না।

মান্না বলেন, ছা্ত্রলীগ আবরারকে ধরে নিয়ে যাওয়ার সময় ভিসিকে জানানো হলেও তিনি হলে আসেননি। তিনি কোনও পদক্ষেপও নেননি। ছাত্রটি মারা গেলেন তবুও তিনি আসলেন না। জানাজাতেও অংশ নিলেন না। অনেক পরে তিনি কুষ্টিয়াতে গেলেন কবর জিয়ারত করতে। তাই এই পাষণ্ড ভিসির অপসারণের দাবি জানাই।’

বৃহস্পতিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সাবেক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নেতৃত্বের ব্যানারে ‘বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে’ আয়োজিত মানববন্ধনে মান্না এসব কথা বলেন।

য়েটে আবরারের জানাজায় অংশ নেননি ভিসি অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম। এ কারণে তিনি সমালোচিত হচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও বলেছেন, ভিসি সাইফুলের আবরারের জানাজায় যাওয়া উচিত ছিল। এ প্রসঙ্গে মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘আবরার ফাহাদকে হত্যার পেছনে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম জড়িত, এটি দিবালোকের মতো স্পষ্ট।

ছাত্রলীগ নেতারা আবরারকে কক্ষ থেকে ধরে নিয়ে যাওয়ার সময় ভিসিকে বলা হলেও তিনি হলে আসেননি। কোনো পদক্ষেপও নেননি। ছাত্রটি মারা যাওয়ার পরও আসলেন না। জানাজাতেও গেলেন না। অনেক পরে তিনি কুষ্টিয়াতে গেলেন কবর জিয়ারত করতে। তাই এই পাষণ্ড ভিসির অপসারণের দাবি জানাই।’

এ সময় ছাত্রলীগের কড়া সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘এরা মানুষ তৈরি করতে জানে না। একটি মেধাবী ছাত্র রাজনীতি করতে ছাত্রলীগে গেলে খুনি হয়ে বের হয়। ছাত্রলীগ মানে ব্যালট বাক্স ছিনতাই কর, হত্যা কর, র‌্যাগিং কর।

আবরার হত্যায় জড়িত ১৯ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। একদিন শুনতে হবে ১৯ জনের ১৮ জনই বেকসুর খালাস। আমরা বিশ্বজিৎ হত্যায় দেখেছি আসামিরা কীভাবে মাফ পেয়ে যায়। তারা এখন বলছে, ফাহাদ হত্যায় ন্যায়বিচার হবে। আমাদের ন্যায়ের প্রতীক আবরার। যত বাধাই আসুক, এই প্রতীক নিয়ে আমরা অন্যায়ের প্রতিবাদ করব।’

আ স ম আবদুর রবের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরও বক্তব্য দেন ডাকসুর সাবেক ভিপি ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমানউল্লাহ আমান, ডাকসুর সাবেক জিএস বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, এজিএস নাজিম উদ্দিন আলম প্রমুখ।

Comments

comments

Visitor counter

Visits since 2018

Your IP: 18.205.176.85

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০