প্রচ্ছদ জাতীয়, শিরোনাম, স্লাইডার

ব্যারিস্টার সুমনের পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেছে আইন মন্ত্রণালয়

নিউজ ডেস্ক | বৃহস্পতিবার, ২৬ মার্চ ২০২০ | পড়া হয়েছে 192 বার

ব্যারিস্টার সুমনের পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেছে আইন মন্ত্রণালয়

মহান মুক্তিযুদ্ধে সংঘটিত মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচারের জন্য গঠিত আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেছে আইন মন্ত্রণালয়।

বুধবার (২৫ মার্চ) আইন মন্ত্রণালয় কর্তৃক এক বিজ্ঞপ্তিতে এই পদত্যাগপত্র গ্রহণের তথ্য জানানো হয়।

সেখানে বলা হয়, উপযুক্ত বিষয় ও সুত্রের প্রেক্ষিতে নির্দেশিত হয়ে জানাচ্ছি যে, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এর চীপ প্রসিকিউটর কার্যালয় কতৃক প্রসিকিউটর জনাব সৈয়দ সায়েদুল হক ( সহকারী অ্যার্টনি জেনারেল পদমর্যাদা) এর দাখিলকৃত পদত্যাগপত্রের প্রেক্ষিতে অত্র মন্ত্রণালয়ে বিগত ১২-১১-২০১২ খ্রিঃ তারিখের সলিঃ/ জিপি-পিপি/ আঃট্রাঃ-০২/২০১০-১৮৯ নং স্মারকমুলে তার প্রসিকিউটর পদে নিয়োগ আদেশ বাতিল পূর্বক তার পদত্যাগপত্র সরকার কর্তৃক গৃহীত হয়েছে।

এছাড়া এমতাবস্থায় জনাব সৈয়দ সায়েদুল হককে (সহকারী অ্যার্টনি জেনারেল পদমর্যাদার) প্রসিকিউটর এর পদ হতে এতদ্বারা অব্যাহতি প্রদান করা হলো।

uএর আগে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি প্রসিকিউটর পদ থেকে অব্যাহতি চেয়ে ট্রাইব্যুনালের চিফ প্রসিকিউটরের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন।

পদত্যাগের বিষয়টি ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন গণমাধ্যমে জানান, সামাজিক বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে স্বেচ্ছায় জড়িত হওয়ায় ট্রাইব্যুনালে সময় দিতে পারছি না। এ অবস্থায় সরকারের কোষাগার থেকে বেতন নেয়া অনৈতিক মনে করায় আমি পদত্যাগ করেছি।

পদত্যাগপত্রে ব্যারিস্টার সুমন লিখেন, ‘২০১২ সালের ১৩ নভেম্বর আমি আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর হিসেবে যোগদান করি। যোগদানের পর থেকে বিভিন্ন মামলা অত্যন্ত নিষ্ঠার সঙ্গে পরিচালনা করেছি। ইদানিং বিভিন্ন সামাজিক স্বেচ্ছামূলক কাজে নিবিড়ভাবে জড়িত হওয়ার কারণে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের মতো রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানে সম্পূর্ণ নিষ্ঠার সঙ্গে সময় দিতে পারছি না। এমতাবস্থায় সরকারি কোষাগার থেকে বেতন নেয়াকে আমি অনৈতিক বলে মনে করি। এ কারণে আমি বর্তমান পদ থেকে অব্যাহতি প্রার্থনা করছি।’

ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর ছাড়াও হাইকোর্টের একজন আইনজীবী। এছাড়া তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একজন জনপ্রিয় ব্যক্তি। ফেসবুকে তাকে ২২ লাখ মানুষ অনুসরণ করে।

এর আগে শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর পদ থেকে অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলী ও ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজকে চাকরিচ্যুত করা হয়।

Comments

comments

Visitor counter

Visits since 2018

Your IP: 3.235.74.77

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১