প্রচ্ছদ খোলা কলাম, জাতীয়, নবীনগরের সংবাদ, বিচিত্র নিউজ, বিবিধ, মনীষী জীবন, মফস্বল, শিরোনাম, সংগঠন সংবাদ, সাক্ষাতকার, স্লাইডার

জগতের সকল পুরুষ নারীবাদী হয়ে উঠুক!

মো. নেয়ামত উল্লাহ | মঙ্গলবার, ০৯ এপ্রিল ২০১৯ | পড়া হয়েছে 316 বার

জগতের সকল পুরুষ নারীবাদী হয়ে উঠুক!

এই দেশে নারীবাদ কেবল হাঁটি হাঁটি পা পা করছে। এ সংক্রান্ত চিন্তাভাবনা, অনুশীলন শুরু হওয়ার কথা ছিল অনেক আগে। হয়েছে। কিন্তু বারবারই মুখ থুবড়ে পড়েছে। আমরা বেগম রোকেয়াকে অনুধাবনেই ব্যর্থ হয়েছি। তারপরও বেগম রোকেয়া আমাদের চিনিয়েছেন নারীবাদকে, আমাদের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছেন পুরুষতন্ত্রের নোংরামি কৌশলগুলোকে। কিন্তু সমাজের একটা বড় অংশ রোকেয়াকে ধারণই করতে পারেনি। সেই প্রস্তুতিই হয়তো ছিল না। একটা অপ্রস্তুত কূপম-ূক সমাজে একা লড়েছেন, সঙ্গ কাউকে পাননি। প্রকৃত অর্থে কেউ তার পাশে ছিল না।

আমরা নারীবাদের চর্চা করছি। নারীবাদকে আমরা তুলে ধরতে চাইছি। আমরা এখনো গুটিকয়। নিতান্ত হাতে গোনা। তবু স্বস্তির বিষয়টা এই, আমরা একা নই আর ঠিক যেমন ছিলেন বেগম রোকেয়া। আজকের নারীবাদী চর্চা তাই এমন একটি জায়গায় দাঁড়িয়ে আছে, যেখানে আমরা অন্তত কয়েক জোড়া হাত একসঙ্গে উপরে তুলেছি, লড়াই-সংগ্রামের মাঠে একে অন্যের ঘাম রক্ত মুছে দিতে শুরু করেছি। আমাদের শক্তির জায়গাটা এটাই।
শক্তি, ঐক্য আছে। লড়াইয়ের মাঠ আছে, অস্ত্র আছে, চেতনার দীপ্তি আছে, এই সবকিছু ‘আছে’র পাশাপাশি আছে আরও কিছু ‘আছে’। অশিক্ষা, কুসংস্কার, গোঁড়ামি, ধর্মান্ধতা, ক্ষমতার দাপট, রাজনীতি, মৌলবাদ, অর্থনীতির দুর্বলতা, বেকারত্ব- এ রকম বহুবিধ সামাজিক, অর্থনৈতিক নিয়ামক, যা নারীর জীবনও নিয়ন্ত্রণ করছে। অর্থনীতির মূল চাকাটি এখনো নারীর হাতে নেই, এখনো নারীদের বেশির ভাগই রোজগেরে নয়। নারীর নিজের অর্থ নেই, ক্যারিয়ার নেই। ফলে নারীর স্বাধীন সত্তাটাও নেই। নারী তাই অধীনস্ত এখনো, এই দুই হাজার সতেরোতেও, এমনকি বহু রোজগেরে নারীর স্বাধীনতাও তার স্বামী-শ্বশুরের কবজায়, এমনকি তার রোজগার করা অর্থও খরচ হয় তাদের নির্দেশানুসারে। তো এহেন পরিস্থিতিতে নারীবাদের চর্চা একেবারেই পা টিপে টিপে যাত্রা শুরু করেছে। আর প্রান্তিক নারীর জীবনে, যেখানে ভাত রাঁধতে দেরি হলেই চ্যালাকাঠ দিয়ে পিটিয়ে স্বামী তার স্ত্রীকে ‘সোজা’ করতে ইচ্ছুক, সেই জীবনের অন্ধকার দরজা দিয়ে নারীবাদ তো ঢোকারই অবকাশ পাবে না, তাকে চিপাচুপা খুঁজে নিয়ে জায়গা করতে হবে। এখন এই জায়গা করে নেওয়ার কাজটা সময়সাপেক্ষ আর রক্ত ঝরাতে হবে অনেকটা।
এই দেশে পুরুষের গৃহস্থালি কাজের অভ্যাস নেই বললেই চলে। হাতে গোনা কিছু পুরুষ গৃহস্থালির কাজ করে। বাসন মাজা, কাপড় ধোয়া, রান্না, বাচ্চা লালনপালন, ঘরদোর পরিষ্কার- এই সব কাজ এই দেশে মেয়েদের কাজ। আমি আমার পরিচিত লোকদের মধ্যে মাত্র এক পার্সেন্ট পুরুষকে পেয়েছি, যাদের বাসায় গিয়ে আমি তাদের রান্না করতে দেখেছি। অথচ আমার পরিচিত মানুষের মধ্যে প্রায় সবাই শিক্ষিত, সচ্ছল, আধুনিক এবং এর মধ্যে অনেকেই আছেন বেশ হোমরাচোমরাও।
তো সমাজের এ রকম একটি ঝকঝকে অংশের পুরুষই এখনো গৃহস্থালির কাজে অভ্যস্ত হতে পারেনি। তাদের স্ত্রী, মা, বোনেরাই এই কাজগুলো করে। এখন নারীবাদের মতো থিওরি এই অংশটিকেই স্পর্শ করতে পারল না। এখনো ছেলে যদি বউকে বাসন মাজায় সাহায্য করে, তবে উচ্চশিক্ষিত শাশুড়ি আম্মার মুখ বেজার হয়। তাইলে রহিমা, সখিনা, অনুফার শাশুড়ির কাছ থেকে নারীবাদ আশা করে লাভটা কী?
নারীবাদের পথটা দীর্ঘ। ক্লান্তিকর, হতাশাবহুল, বেদনার- তবু হাল ছাড়ার নয়। যে আমাদের পাশে থাকার কথা বলে, আমি জানি তাদের অধিকাংশই বাড়িতে ফিরে চিতপটাং পড়ে যায় বিছানায় আর বউ রেঁধে বেড়ে খেতে ডাকে। খাওয়ার পরে বউই সব পরিষ্কার করে গুছিয়ে ফেলে। অথচ এই নারীবাদী পুরুষেরা তাদের নারীবাদের চর্চা শুরু করতে পারতে ঘর থেকেই। কারণ, নারীবাদী হওয়ার জন্য ফেসবুকে বা নারীবাদীদের আড্ডায় বড় বড় কথা বলে নিজেকে জাহির করার দরকার হয় না। গেরস্থালি এবং সন্তান পালনে স্ত্রীর সঙ্গে কাজটা সমানভাবে ভাগ করে নেওয়াই সবচেয়ে বড় নারীবাদ। স্ত্রীকে তার ইচ্ছানুযায়ী পড়ালেখা এবং তার নিজের ক্যারিয়ার গড়ে নিতে তার পাশে থাকার নামই নারীবাদ। একজন সহকর্মীকে, একজন বন্ধুকে নারী নয়, সহকর্মী বা বন্ধু হিসেবে বিবেচনা করাই নারীবাদ। নিজের কন্যা সন্তানের জন্য ব্যাট-বল কিনে আনতে পারার মানসিকতাই নারীবাদ। ব্যস, আর কিচ্ছু লাগে না। কিছুই না।

আবার অনেক পুরুষ পাঠক বলে, আমি তাদের জন্য কেন লিখি না। আজ লিখলাম। আমি জানি, মানুষমাত্রই মানবিক। কিন্তু যুগ যুগ ধরে প্রবাহিত অন্ধ গোঁড়ামি, রীতি, পুরুষতন্ত্রের কৌশল পুরুষকে পুরুষ করে রেখেছে। এই পুরুষ থেকে মানুষ হবার শ্রেষ্ঠ উপায় নারীবাদী হয়ে ওঠা। কারণ, নারীবাদ শুধু নারীর কথা বলে না, নারীবাদ বলে মানুষের কথা। নারীবাদ বলে নারী-পুরুষের বন্ধু হয়ে ওঠার কথা। জয় হোক নারীবাদের। জয় হোক নারী-পুরুষ সকলের- যারা সমতার কথা বলে, যারা মানবতার গান গায়!

Comments

comments

Visitor counter

Visits since 2018

Your IP: 18.206.194.210

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০